প্রধানমন্ত্রী পদে প্রার্থী ঘোষণা করল ইমরান খানের দল – RBC

প্রধানমন্ত্রী পদে প্রার্থী ঘোষণা করল ইমরান খানের দল

প্রকাশ: ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২৪

আরবিসি নিউজ, ডেস্ক:

প্রধানমন্ত্রী পদে দলীয় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করল পাকিস্তানের কারান্তরীণ সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)। বৃহস্পতিবার দলটির মহাসচিব ওমর আইয়ুব খানকে প্রধানমন্ত্রী পদে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করা হয়। কারাগারে পিটিআই এর প্রতিষ্ঠাতা ইমরানের সঙ্গে কথা বলার পর দলের নেতা আসাদ কায়সার এ ঘোষণা দেন। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “পিটিআই মহাসচিব ওমর আইয়ুব প্রধানমন্ত্রী পদে আমাদের দলের প্রার্থী হবেন। ইমরান খান তাকে মনোনীত করেছেন।” আইয়ুবের প্রার্থিতায় সমর্থন দেওয়ার বিষয়ে পিটিআই অন্যান্য দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা করবে বলে জানান কায়সার। প্রধানমন্ত্রী পদে মনোনীত ওমর আইয়ুব খান পাকিস্তানের সাবেক সামরিক শাসক মার্শাল আইয়ুব খানের (১৯৫৮-১৯৬৯) নাতি। ২০১৮ সালে ইমরান খানের হাত ধরে পিটিআইতে যোগ দেন তিনি। ইমরান খানের সরকার আমলে তিনটি মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি। প্রথমে বিদ্যুৎমন্ত্রী, এরপর পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী এবং সবশেষ অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছিলেন ওমর আইয়ুব খান। ইমরান খান গ্রেপ্তার হওয়ার পর ওমর আইয়ুবের বিরুদ্ধে গণবিক্ষোভে অংশ নেওয়ার অভিযোগহ আরও কয়েকটি ঘটনার তদন্ত চলার কারণে তিনি সম্প্রতি আত্মগোপনে আছেন। অনুপস্থিত থেকেও ওমর আইয়ুব নিজ আসন থেকে নির্বাচনে লড়েছিলেন। গত ৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত পাকিস্তানের জাতীয় নির্বাচনে কোনও দলই এককভাবে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় আসন পায়নি। নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দ না পাওয়া ইমরান খানের দল পিটিআই-সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা সবচেয়ে বেশি আসন নিশ্চিত করেছে। পিটিআই এর প্রধান প্রতিপক্ষ নওয়াজ শরিফের দল পিএমএল-এন রয়েছে দ্বিতীয় অবস্থানে। আর বিলাওয়াল ভুট্টোর পিপিপি আছে তৃতীয় অবস্থনে। এ পরিস্থিতিতে একটি জোট সরকার গঠনের জন্য ইমরানের পিটিআই বিরোধী বড় দুটি দল পিএমএল-এন এবং পিপিপি কাজ করছে। পিএমএল-এন শাহবাজ শরিফকে প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী করার ঘোষণা দিয়েছে। পিটিআই এর বর্তমান চেয়ারম্যান বলেছেন, পিটিআই অন্য দল পিএমএল-এন, পিপিপি কিংবা এমকিউএম-পি এর সঙ্গে ক্ষমতা ভাগাভাগিতে যাবে না। পিটিআই এর পূর্ণ জনরায় ফিরিয়ে না দেওয়া পর্যন্ত দল তীব্র বিরোধিতা করে যাবে। তবে পিটিআই কেন্দ্র, পাঞ্জাব প্রদেশ এবং খাইবার পাখতুনখাওয়ায় সরকার গঠনের মতো অবস্থায় আছে। তিনি জানান, ভোট ডাকাতির অভিযোগে দেশজুড়ে বিক্ষোভ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে শনিবার। তিনি বলেন, “দল স্পষ্ট জনরায় পেয়েছে। কিন্তু সেই ম্যান্ডেট কেড়ে নেওয়া হয়েছে।”