দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণসহ একগুচ্ছ নির্দেশনা প্রধানমন্ত্রীর – RBC

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণসহ একগুচ্ছ নির্দেশনা প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশ: জানুয়ারি ১৫, ২০২৪

আরবিসি নিউজ, ডেস্ক:

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ, দুর্নীতি প্রতিরোধ, সরকারি ক্রয়ে স্বচ্ছতা এবং সরকারি শূন্যপদ পূরণসহ একগুচ্ছ নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নতুন মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকে সোমবার (১৫ জানুয়ারি) তিনি এসব নির্দেশনা দেন বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এ বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন শেখ হাসিনা। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে ব্রিফিং করেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব। তিনি বলেন, মন্ত্রিপরিষদের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানানো হয়েছে এবং প্রধানমন্ত্রী তাঁর তরফ থেকে কিছু নির্দেশনা দিয়েছেন। ‘এগুলোর মধ্যে তিনি বেশি জোর দিয়েছেন যে, মূদ্রাস্ফীতি এবং দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা নিতে মন্ত্রিবর্গকে নির্দেশনা দিয়েছেন। আগামী রমজান মাসে যাতে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে থাকে এবং রমজানে যে সব পণ্যের চাহিদা বেড়ে যায়, সেগুলোর সরবরাহ পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকে সে ব্যাপারেও কাজ করার নির্দেশনা দিয়েছেন। ’ মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, কৃষি উৎপাদন যেন কোনো অবস্থায় ব্যাহত না হয় এবং একই সাথে কৃষিপণ্য সংরক্ষণাগার ইতোমধ্যে কিছু তৈরি করা হয়েছে এবং আরও কিছু তৈরি করার নির্দেশনা দিয়েছেন। স্মার্ট বাংলাদেশের জন্য চারটি স্তম্ভের কথা জানিয়ে তিনি বলেন, স্মার্ট সিটিজেন, স্মার্ট সরকার, স্মার্ট অর্থনীতি এবং স্মার্ট জনগণ—এই চারটি স্তম্ভের ওপর ভিত্তি করে সব মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে যে, ওই অংশের সাথে জড়িত অংশটুকু যেন তারা পরিকল্পনা এবং বাস্তবায়ন করে। যে প্রকল্প প্রায় শেষ পর্যায়ে আছে, সেগুলো দ্রুত শেষ করার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। যে প্রকল্প থেকে জনগণ উপকার পাবে সে প্রকল্প নিতে বলেছেন। নতুন প্রকল্প নেওয়ার আগে সেটি কীভাবে জনগণের কল্যাণে লাগবে, তা খুব ভালোভাবে পরীক্ষা করতে বলেছেন এবং সম্ভাব্যতা যাচাই করে যেন প্রকল্প প্রণয়ন করা হয়, সেই নির্দেশনা দিয়েছেন। সরকারি ক্রয়ের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার কথা বলেছেন জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে ওনার (প্রধানমন্ত্রী) জিরো টলারেন্স এবং সকল মন্ত্রণালয়কে একই নির্দেশনা অনুসরণের নির্দেশনা দিয়েছেন। সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি যেগুলো আছে সেগুলো যেন প্রকৃত উপকারভোগীরা পায়, সেটি মনিটর করার জন্য তিনি নির্দেশনা দিয়েছেন। শূন্যপদ পূরণ নিয়ে নির্দেশনা দিয়েছেন জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, সরকারি শূন্যপদ পূরণে নিয়োগের ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিয়েছেন। নারী উন্নয়ন ও নারীর ক্ষমতায়নে সাফল্যের যে ধারা তৈরি হয়েছে, সেটি যাতে কোনো অবস্থাতেই ব্যাহত না হয় সেদিকে নজর দিতে বলেছেন তিনি। রপ্তানি বহুমুখীকরণের জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন শেখ হাসিনা। নতুন বাজার অনুসন্ধান এবং নতুন বাজারে কীভাবে প্রবেশ করা যায়, সে নির্দেশনা তিনি দিয়েছেন। বিশেষ করে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, পাট ও পাটজাত পণ্য এবং কৃষিজাত পণ্যের বিষয়ে তিনি বলেছেন। গার্মেন্টসকে যেভাবে সহায়তা দেওয়া হয়েছে, প্রয়োজনে সেরকম সহায়তা দিয়ে তিনটি ক্ষেত্রে যেন বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয় সেজন্য তিনি নির্দেশনা দিয়েছেন। শিক্ষার ক্ষেত্রে তিনি বলেছেন যে, আইসিটি শিক্ষাকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া যাতে সেটি বেশি কর্মমুখী হয়। ফ্রিল্যান্সিং আরও বাড়তে পারে সে ব্যাপারে নির্দেশনা দিয়েছেন। যুব সমাজকে খেলাধুলা, সংস্কৃতি চর্চার জন্য বিভিন্ন কর্মসূচি নিতে বলেছেন, যাতে তারা মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ থেকে বিরত থাকতে পারে। অগ্নিসন্ত্রাসকে সমন্বিতভাবে মোকাবিলা করার জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। দ্রব্যমূল্য বাড়তির কারণে মানুষের কষ্ট লাঘবের জন্য তিনি এখনই কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন। দ্রব্যমূলের ঊর্ধ্বগতি থাকলেও প্রশাসনের কোনো উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে না—এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আজকে প্রথম মন্ত্রিসভার বৈঠক শুরু হয়েছে। সেখানে প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে সুস্পস্ট নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। আপনারা দেখেন কালকে থেকে কী হয়। কালকে থেকে নিশ্চয়ই কার্যক্রম দেখবেন আমি আশা করছি। দুর্ভিক্ষ নিয়ে শঙ্কার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী কিছু বলেছেন কি না জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আমাদের কৃষি পণ্যের উৎপাদন বৃদ্ধি ও সংরক্ষণাগার তৈরির নির্দেশনা দিয়েছেন।