শীত থাকবে আরও কয়েক দিন, বৃহস্পতিবার বৃষ্টির সম্ভাবনা – RBC

শীত থাকবে আরও কয়েক দিন, বৃহস্পতিবার বৃষ্টির সম্ভাবনা

প্রকাশ: জানুয়ারি ১৪, ২০২৪

আরবিসি নিউজ, ডেস্ক:

রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে জেঁকে বসেছে তীব্র শীত। ঘন কুয়াশার কারণে রোদের দেখা পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে দিন ও রাতে প্রায় একই রকম শীত পড়ছে। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে অর্থাৎ দুপুরের দিকে কুয়াশার ঘনত্ব কিছুটা কমবে বলে জানিয়েছেন অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান। রবিবার (১৪ জানুয়ারি) বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর এ তথ্য জানান। মূলত জানুয়ারি মাসকে বছরের সবচেয়ে শীতলতম মাস হিসেবে ধরা হয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, “ঢাকায় কুয়াশার যে ঘনত্ব এখন রয়েছে, দুপুরের পর সেটা অল্প একটু কমবে। আজ রোদ ওঠার সম্ভাবনা খুব কম। রাতের তাপমাত্রা কিছুটা বাড়তে পারে। তবে আবহাওয়া পরিস্থিতির উল্লেখযোগ্য কোনো পরিবর্তন হবে না।” আগামী বুধবার অথবা বৃহস্পতিবার বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে জানিয়ে তিনি বলেন, “আগামী বুধবার অথবা বৃহস্পতিবার সারাদেশে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে চট্টগ্রাম বিভাগের বৃষ্টির সম্ভাবনা কম।” আগামী ৭২ ঘণ্টার আবহাওয়া পূর্বাভাসে অধিদপ্তর জানিয়েছে, উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে, যার বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। বৃষ্টিপাতের বিষয়ে বলা হয়েছে, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। কুয়াশার বিষয়ে বলা হয়েছে, মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত সারাদেশে মাঝারী থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে এবং এটি কোথাও কোথাও দুপুর পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। ঘন কুয়াশার কারণে মধ্যরাত থেকে দুপুর পর্যন্ত বিমান চলাচল, অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন এবং সড়ক যোগাযোগে সাময়িক ভাবে বিঘ্ন ঘটতে পারে। শৈত্যপ্রবাহের বিষয়ে বলা হয়েছে, রাজশাহী, দিনাজপুর, চুয়াডাঙ্গা ও পঞ্চগড় জেলাগুলো ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা কিছু কিছু জায়গা থেকে প্রশমিত থাকতে পারে। শনিবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল টেকনাফে ২৬.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল দিনাজপুরে ৮.৫ ডিগ্রি।